১৯ মাস পর হলে ফিরলো ঢাকা কলেজ শিক্ষার্থীরা

প্রায় ১৯ মাসেরও বেশি সময় বন্ধ থাকার পর ঢাকা কলেজের আবাসিক হলগুলো খুলে দেওয়া হয়েছে। ২০২০ সালের মার্চে করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতিতে বন্ধ করে দেওয়া হয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সেই সাথে বন্ধ করে দেওয়া হয় আবাসিক হলসমূহ।

রোববার (২৪ অক্টোবর) বিকেল ৪টায় আনুষ্ঠানিকভাবে ফুল দিয়ে শিক্ষার্থীদের বরণ করে নেওয়া হয়। দীর্ঘদিন পর হলে ফিরতে পেরে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীরা বলছেন, শিক্ষা জীবনের খুব অল্প সময়ই হলে থাকার সুযোগ হয় । তবে করোনার কারণে দীর্ঘ সময় হলে বাহিরে থাকায় হলে থাকার প্রতিটি মুহুর্তকে মিস করেছি দীর্ঘদিন পরে হলে ফিরতে পারায় খুবই ভালো লাগছে ।

ঢাকা কলেজের উত্তর হলের আবাসিক শিক্ষার্থী মামুন বলেন, অনেকদিন পর হলে ফিরে ভাল লাগছে। প্রিয় বন্ধু, বড় ভাইদের সঙ্গে দেখা হচ্ছে।মনে হচ্ছে কারাগার থেকে মুক্ত হয়ে নিজ গৃহে ফিরে এসেছি । হল খুলে দেওয়ার জন্য প্রশাসনকে ধন্যবাদ।

সাউথ হলের আবাসিক শিক্ষার্থী তানবীর হাসান বলেন, হলে উঠতে পেরে খুবই ভালো লাগছে । এবার ভালোভাবে লেখাপড়া চালিয়ে যেতে পারবো। হলের সংস্কার কাজ দ্রুত শেষ হলে আমাদের ভোগান্তি কমবে। আশা করি, কলেজ প্রশাসন এ বিষয়ে নজর দেবেন।

হল ফটক থেকে শিক্ষার্থীদের বরণ করে নেন ঢাকা কলেজের উপাধ্যক্ষ। এসময় বিভিন্ন হলের তত্ত্বাবধায়ক, শিক্ষকসহ ছাত্রলীগ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

উপাধ্যক্ষ প্রফেসর এ.টি.এম. মইনুল হোসেন বলেন, হলে ওঠার পর শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। কোনো কক্ষের শিক্ষার্থী যদি কোভিড আক্রান্ত হয় তাহলে সঙ্গে সঙ্গে সেই কক্ষ বন্ধ করে দেওয়া হবে। আমরা স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে আমরা সর্বোচ্চ সতর্ক থাকবো।

তিনি আরও বলেন, হলগুলোর সংস্কার কাজ চলমান থাকায় শিক্ষার্থীদের কিছুটা ভোগান্তি হবে। তবে বাইরে থাকতে শিক্ষার্থীদের অনেক কষ্ট হবে। আমরা শিক্ষার্থীদের কথা চিন্তা করেই হল খুলে দিয়েছি। সংস্কার কাজ দ্রুত শেষ হয়ে যাবে।

ওমর ফারুক/বার্তা বাজার/এসজে

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো