নানা আয়োজনে ফরিদপুরে পালিত হচ্ছে পল্লীকবির ১১৯ তম জন্মদিন

নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে ফরিদপুরে পল্লীকবি জসীম উদ্‌দীনের ১১৯ তম জন্মদিন পালিত হচ্ছে।

দিবসটি উপলক্ষে শনিবার (১ জানুয়ারী) সকাল নয়টায় ফরিদপুর সদর উপজেলার অম্বিকাপুর ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামের পৈত্রিক বাড়ির আঙিনায় প্রিয় ডালিম গাছের তলে কবির কবরে জেলা প্রশাসন ও জসীম ফাউন্ডেশন, ফরিদপুর প্রেসক্লাব, ফরিদপুর সাহিত্য ও সংস্কৃতি উন্নয়ন সংস্থা, আনছারউদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন পুষ্পমাল্য অর্পণ করে।

পরে ফরিদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(সার্বিক) দিপক কুমার রায়ের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় অংশগ্রহণ করেন মুঠোফোনে প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা, কবির ছোট মেয়ের স্বামী তৌফিক এলাহী চৌধুরী, জেলা প্রশাসক অতুল সরকার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জামাল পাশা, স্থানীয় বিভাগের উপপরিচালক মোঃ আসলাম মোল্যা, রাজেন্দ্র কলেজের অধ্যক্ষ অসীম কুমার সাহা, প্রেসক্লাবের সভাপতি কবিরুল ইসলাম সিদ্দিকি প্রমুখ। সভা শেষে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

উল্লেখ্য, জসীম উদ্‌দীন ১৯০৩ সালের ১ জানুয়ারি ফরিদপুর জেলা সদরের তাম্বুলখানা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। মোহাম্মাদ জসীম উদ্‌দীন মোল্লা তার পূর্ণ নাম হলেও তিনি জসীম উদ্‌দীন নামেই পরিচিত। বাবার নাম আনসার উদ্দিন মোল্লা। তিনি পেশায় একজন স্কুল শিক্ষক ছিলেন। মা আমিনা খাতুন ওরফে রাঙাছুট। পল্লী কবি ১৯৭৬ সালে আজকের এই দিনে ঢাকায় মৃত্যুবরণ করেন। তার শেষ ইচ্ছা অনুসারে তাকে নিজ বসত প্রাঙ্গণ ফরিদপুর জেলার আম্বিকাপুর গ্রামে তার দাদীর কবরের পাশে দাফন করা হয়।

জসীম উদ্‌দীন একজন বাঙালি কবি, গীতিকার, ঔপন্যাসিক ও লেখক। ‘পল্লীকবি’ উপাধিতে ভূষিত, জসীম উদ্‌দীন আবহমান বাংলার সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যে লালিত প্রথম পূর্ণাঙ্গ আধুনিক কবি। ঐতিহ্যবাহী বাংলা কবিতার মূল ধারাটিকে নগরসভায় নিয়ে আসার কৃতিত্ব জসীম উদ্‌দীনের।

মিয়া রাকিবুল/বার্তা বাজার/মনির।

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো