কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে পদ বাণিজ্যের অভিযোগ

নব ঘোষিত সিলেট ছাত্রলীগের কমিটি বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ছাত্রলীগের বিদ্রোহীরা। বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) দুপুরে নগরীর তেলি হাওর থেকে বের হয়ে মিছিলটি বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে সিলেট কোর্টপয়েন্টে সভায় মিলিত হয়।

এসময় নগরীতে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। কয়েক ঘন্টা আটকে পড়ে যানবাহন। মিছিলে নেতৃত্ব দেন সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শাহরিয়ার আলম সামাদ।
বিক্ষোভ মিছিলে হাজার হাজার ছাত্রলীগ নেতাকর্মীর স্লোগানে প্রকম্পিত হয়ে উঠে সিলেট নগরী। এসময় নেতাকর্মীরা প্লেকার্ড হাতে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে।

ছাত্রলীগের বিদ্রোহী নেতারা বলেছেন, নব ঘোষিত সিলেট মহানগর ও জেলা কমিটিতে যাদের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে তাদের অনেকেই অছাত্র এবং নানা অভিযোগ রয়েছে তাদের নামে।

শাহরিয়ার আলম সামাদ বলেন, ৮ম শ্রেণি পাস এবং ছিনতাই প্রকৃতির ব্যক্তিদের দিয়ে এই কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। আমরা এই কমিটি প্রত্যাখ্যান করে ইতোমধ্যে জানিয়ে দিয়েছি। রাজপথকে যারা সবসময় গরম রেখেছে, ত্যাগ স্বীকার করে রাজপথ ধরে রেখেছে কেন্দ্রীয় কমিটি তাদের মূল্যায়ন করেনি। বরং কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ বড় অংকের টাকার বিনিময়ে এই কমিটি অনুমোদন দিয়েছে।

উল্লেখ,দীর্ঘ অপেক্ষার পর গত ১২অক্টোবর সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের নতুন কমিটি অনুমোদন দেয় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। জেলা কমিটির সভাপতি হিসেবে নাজমুল হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে রাহেল সিরাজ এবং সিলেট মহানগর কমিটিতে সভাপতি হিসেবে কিশওয়ার জাহান সৌরভ ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নাইম আহমদের নাম ঘোষণা করা হয়।

এ সময় বলা হয় আগামী এক বছরের জন্য এ কমিটির অনুমোদন দেয় কেন্দ্রীয় কমিটি ।এমন ঘোষণার পরপরই ক্ষোভে ফেঁটে পড়েন সিলেটে ছাত্রলীগের পদ বঞ্চিত একাংশ। তারা কালো পতাকা মিছিলসহ সংবাদ সম্মেলন করে নব ঘোষিত কমিটি প্রত্যাখ্যান করে কেন্দ্রীয় কমিটির পদ বাণিজ্যের অভিযোগ আনেন। সেই বিক্ষোভ এখনো চলমান রয়েছে সিলেটে ছাত্রলীগের বিদ্রোহীদের।

সাইফুল ইসলাম/বার্তা বাজার/এসজে

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো