ভারতের কারাগারে পাওয়া যাচ্ছে অসংখ্য এইডস রোগী

ভারতের আসাম প্রদেশের বেশ কয়েকটি কারাগারে এইচআইভি পজেটিভ রোগী শনাক্ত হয়েছে। জেলাগুলোর কারাগারে এইডসে আক্রান্ত রোগী পাওয়ায় গণহারে এইচআইভি টেস্টের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন।

দেশটির গণমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, আসাম প্রদেশের শিলচর কারাগারে সম্প্রতি ৫ বন্দির দেহে এইডসের জীবাণু পাওয়া গেছে। এরপর পুরো কারাগারে ছড়িয়ে পড়েছে উদ্বেগ।

শিলচরের জেল সুপার সত্যেন্দ্র বৈশ্য জানান, দু’জন সাজাপ্রাপ্ত ও তিনজন বিচারাধীন বন্দীকে পরীক্ষা করা হয়েছিল। পাঁচজনই পজিটিভ হয়েছেন। বাকি বন্দীদের বাধ্যতামূলক পরীক্ষা করা হচ্ছে। দু’জন সাজাপ্রাপ্ত আসামির মধ্যে একজন মণিপুরের বাসিন্দা। অপরজন ট্রাকচালক ছিলেন।

তিনি আরও জানান, উপযুক্ত সুরক্ষার ব্যবস্থা না রেখেই ট্রাক চালকরা মাঝেমধ্যেই শারীরিক সম্পর্ক করেন। জেলে আসার পরই ওই ট্রাকচালককে পরীক্ষা করা হয়েছিল। তারপরই দেখা যায় তিনি এইচআইভি পজিটিভ। মণিপুরের ওই বাসিন্দা জানিয়েছিলেন, তিনি অরক্ষিত যৌন জীবনযাপন করেছেন। এরপর তারও পরীক্ষা করা হয়। দেখা যায়, তিনিও পজিটিভ।

সূত্র জানায়, অপর তিনজন বিচারাধীন বন্দী মাদক সেবন করতেন। একজনের সিরিঞ্জ অপরজন ব্যবহার করতেন। সেটাও কারণ হতে পারে। তাদের মধ্যে দুজনকে শিলচর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, অক্টোবরের প্রথম দিকে আসামের নগাঁও জেলার ৮৮ জন বিচারাধীন বন্দী এইডসে আক্রান্ত হন। এরপরেই অন্য কারাগারগুলোতেও পরীক্ষার নির্দেশ দেওয়া হয়।

জানতে চাইলে এদিক কাছারের স্বাস্থ্য দপ্তরের জয়েন্ট ডিরেক্টর আশুতোষ বর্মন বলেন, পাঁচজনেরই এআরটি ট্রিটমেন্ট শুরু হয়েছে।

বার্তা বাজার/এসজে

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো