কুমিল্লার মেঘনায় নির্বাচনী সহিংসতায় ২জন নিহত

কুমিল্লার মেঘনা উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে ২জন নিহত হয়েছে। গুলিবিদ্ধসহ আহত হয়েছে অন্তত ১৫ জন। নিহতরা হলেন মানিকারচর ইউনিয়নের ভল্লবেরকান্দি গ্রামের মোবারক হোসেনর ছেলে শাওন(২৫) ও ভাওরখোলা ইউনিয়নের খিরাচক গ্রামের মৃত মুজাফফর ঢালীর ছেলে সানাউল্লা ঢালী (৫৭)।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মেঘনা থানার ওসি(তদন্ত) মোঃ জাকির হোসেন।

স্থানীয়রা জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ গুলি ছোড়ে। এতে শাওন আহমেদ জসু মিয়া ও নাজমুল নামের তিনজন গুলিবিদ্ধসহ আহত হন অন্তত ১০ জন। পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে মেঘনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে শাওনসহ ৩ জনকে আশংকাজনক অবস্থায় ঢাকায় পাঠানো হয়। এরমধ্যে শাওন পথেই মারা যায়।

এঘটনার পর আমিরাবাদ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুই ঘন্টা ভোট গ্রহন বন্ধ ছিল। পরে কুমিল্লা জেলা পুলিশ সুপার মোঃ ফারুক আহম্মেদ পিপিএম(বার) ঘটনাস্থল পরিদর্শন করার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসলে পুনরায় ভোট গ্রহন শুরু হয়।

ভাওরখোলা ইউনিয়নের খিরারচক সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় সানাউল্লা নামে আরেকজন মারা যায়।

মেঘনা থানার ওসি ( তদন্ত) মোঃ জাকির হোসেন দুইজন নিহতের বিষয়টি সাংবাদিকদের বলেন, নিহত শাওনের মাথায় আঘাতের চিহ্ন থাকলেও সানাউল্লার শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন দেখা যায়নি।

এ্যান্টনি দাস(অপু)/বার্তাবাজার/কা.হা

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো