নৌকার প্রার্থীসহ জামানত হারালেন ২২ চেয়ারম্যান

দ্বিতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ঢাকার ধামরাই উপজেলার ১৫টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত এক নৌকার প্রার্থীসহ ২২ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী তাদের জামানত হারিয়েছেন। জানা গেছে তারা মোট প্রদত্ত ভোটের মধ্যে আট ভাগের একভাগ ভোটও পাননি বলে।

যাদের জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে তারা হলেন- ধামরাই সদর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী শাহাবুদ্দিন, জাতীয় পার্টির আব্দুল হাদী, কুল্লা ইউনিয়নে জাতীয় পার্টির জানিফ হোসেন, ইসলামী আন্দোলনের আব্দুল কুদ্দুস মিয়া, ভাড়ারিয়া ইউনিয়নে জিয়াউল হক, আব্দুর রাজ্জাক, সোমভাগ ইউনিয়নে জাতীয় পার্টির ইমরান খান, গাংগুটিয়া ইউনিয়নে ইসলামী আন্দোলনের মনিরুল হক, বাইশাকান্দা ইউনিয়নে সোহরাব হোসেন ও যাদবপুর ইউনিয়নে আসলাম হোসাইন।

এছাড়াও আমতা ইউনিয়নে জাতীয় পার্টির খোরশেদ আলম, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি ওয়াসিম আকরাম রাজা, মাহবুব আলম, চৌহাট ইউনিয়নে জাতীয় পার্টির ইউসুফ আলী, মোশারফ হোসেন, আবু সাঈদ, সুয়াপুর ইউনিয়নের মাহফুজুর রহমান, ওবায়দুল্লাহ খান, হাফিজুর রহমান, আনোয়ারুল হক খান, রোয়াইল ইউনিয়নে আবুল কালাম সামসুদ্দিন ও ইসলামী আন্দোলনের শামছুল ইসলাম জামানত হারান।
এদের মধ্যে সুয়াপুর ইউনিয়নের হাফিজুর রহমান, ওবায়দুল্লাহ খান ও রোয়াইল ইউনিয়নের আবুল কালাম সামসুদ্দিন নির্বাচনের কয়েকদিন আগেই নৌকার প্রার্থীদের সমর্থন জানিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছিলেন।

এ বিষয়ে জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা মুনীর হোসাইন খান বলেন, প্রদত্ত ভোটের আটের একভাগ ভোট না পেলে নিয়ম অনুযায়ী ওই প্রার্থীর জামানত বাজেয়াপ্ত হয়ে যায়। যাদের জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে তারা কেউ কাঙ্ক্ষিত ভোট পাননি।

বার্তাবাজার/কা.হা

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো