অবশেষে শিক্ষার্থীদের হাফপাশ দিতে বাধ্য হলো রাইদা পরিবহন

রাজধানীর রামপুরায় হাফ পাশে নেওয়ার জন্য বলায় এক শিক্ষার্থীকে ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বাস থেকে নামিয়ে দেওয়ায় রাইদা পরিবহনের ৫০টি বাস আটক করে ঢাকা ইম্পিরিয়াল কলেজের শিক্ষার্থীরা। পরে শিক্ষার্থীদের সাথে সমঝোতা করতে রাজি হয়েছেন রাইদা পরিবহনের মালিক পক্ষ।

রামপুরা থানায় পরিবহ্নটি মালিকদের সাথে শিক্ষার্থীদের সমঝোতা হয়। তখন শিক্ষার্থীরা জানান,পরিচয়পত্র দেখানোমাত্র রাজধানীর যেকোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে হাফ ভাড়া নিতে হবে। পরে তাদের এই দাবি রাইদা কর্তৃপক্ষ মেনে নেয়।

সোমবার (১৫ নভেম্বর) বিকেল ৩টায় গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন রামপুরা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. সাইফুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ঢাকা ইমপিরিয়াল কলেজের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে রাইদা পরিবহনের সমঝোতা প্রায় শেষের দিকে রয়েছে। শিক্ষার্থীদের সব দাবি রাইদা পরিবহন কর্তৃপক্ষ মেনে নিয়েছে।

শিক্ষার্থীরা রাইদা পরিবহনের কাছে দাবি করে, নিয়ম অনুযায়ী ঢাকা শহরের যেকোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা পরিচয়পত্র দেখানোমাত্র তাদের কাছ থেকে হাফ ভাড়া নিতে হবে। এছাড়া প্রতিটি বাসে নারীদের জন্য যে নয়টি আসন সংরক্ষিত থাকে সেখানে কোনোভাবেই নারী ছাড়া পুরুষ বসতে পারবে না।

বার্তা বাজার/এসজে

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো