অবশেষে শিশু ধর্ষণ চেষ্টাকারীকে গ্রেফতার

ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গায় সাত বছর বয়সী শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার ঘটনায় অভিযুক্তকে শনাক্ত করে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বুধবার (১৭ নভেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার শেখর ইউনিয়নের শেখপুর গ্রাম থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে বোয়ালমারী থানা পুলিশ। অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম নয়ন মোল্যা (১৫)। সে নড়াইল জেলার লোহাগড়া উপজেলার চরশালনগর গ্রামের রবিউল ইসলামের ছেলে।

বৃহস্পতিবার (১৮ নভেম্বর) দুপুরে অভিযুক্ত নয়ন মোল্যাকে ফরিদপুর বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

মামলার তদন্তকারী কমর্কর্তা বোয়ালমারী থানার উপ-পরিদর্শক মো. হাফিজুর রহমান বলেন, সাত বছর বয়সী এক শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টা করা হয়েছে অভিযোগ এনে ওই শিশুর বাবা অজ্ঞাত ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। পরে তদন্ত করে ঘটনার সাথে জড়িত নয়ন মোল্যাকে গ্রেফতার করা হয়। সে গত ১৪ নভেম্বর শেখপুর গ্রামে তার মামা বাড়িতে বেড়াতে এসে ৭বছর বয়াসী ওই শিশুকে ধর্ষনের চেষ্টা করে।

প্রসঙ্গত, আলফাডাঙ্গা উপজেলার কুঠুরাকান্দি গ্রামের এক বাসিন্দা বুড়াইচ গ্রামে ভাড়া বাসায় থেকে রংমিস্ত্রীর কাজ করেন। সেখানে তার স্ত্রীও রাস্তায় রিপেয়ারিং কাজের শ্রমিকদের রান্না করেন। গত রবিবার (১৪ নভেম্বর) সকাল ১১টার দিকে ওই শিশুর মা বাড়ির পাশে রাস্তায় রিপেয়ারিং কাজের শ্রমিকদের জন্য রান্না করতে যায়। এসময় শিশুটি আলফাডাঙ্গা ব্রিজের পূর্বপাশে দুপুর ১টার দিকে বারাশিয়া নদীতে বরশি দিয়ে মাছ মারা দেখতেছিল। মাছ ধরা লোকজনের পাশে এক ব্যক্তি দাঁড়িয়েছিল।

ওই অপরিচিত ব্যক্তি দুপুর ২টার দিকে ওই শিশুকে কয়েকটি চকলেট দেয় এবং আরো চকলেট দেওয়ার লোভ দেখিয়ে পার্শ্ববর্তী বোয়ালমারী উপজেলার শেখর ইউনিয়নের শেখপুর গ্রামে দাউদ মোল্যার কলা বাগানে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ চেষ্টা করে। শিশুটি বাঁচার জন্য ধস্তাধস্তি করে শোর চিৎকার করলে শিশুটিকে বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখিয়ে চলে যায় ওই অপরিচিত ব্যক্তি। ঘটনার পরে শিশুটি ওই স্থান থেকে আলফাডাঙ্গা উপজেলা হলরুমে একটি অনুষ্ঠান দেখতে যাওয়ার সময় তার বাবা তাকে ডেকে বাড়িতে নিয়ে যায়।

বাড়িতে যাওয়ার পর শিশুটির মা রক্তক্ষরণ দেখে শিশুটির কাছে জানতে চাইলে সে মার কাছে সব ঘটনা খুলে বলে। পরে শিশুটিকে আলফাডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। পরবর্তীতে এ ঘটনায় সোমবার (১৫ নভেম্বর) শিশুটির বাবা অজ্ঞাত আসামি করে বোয়ালমারী থানায় ধর্ষণ চেষ্টা মামলা করেন। মামলা নম্বর-৬।

মিয়া রাকিবুল/বার্তা বাজার/এসজে

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো