যুগের তরুণদের আইডল আনিসুর রহমান নিলয়

বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার এক-তৃতীয়াংশই তরুণ। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক একটি গবেষণা প্রতিষ্ঠানের মতে, বাংলাদেশে রয়েছে ৪ কোটি ৭৬ লাখ তরুন। বর্তমান তরুণ সমাজের বড় অংশই বেকার, অনিশ্চিত জীবনের পথে। যার কারণে অনেক তরুণ হতাশাগ্রস্ত হয়ে আত্মহত্যার পথেও হাঁটেন। এই বেকারত্বের অভিশাপ ঘুচাতে দেশে নেই পর্যাপ্ত চাকরীর সুযোগ, তারই ধারাবাহিকতায় অনেক যুবক হয়ে ওঠছেন উদ্যোক্তা, অনেকেই বেছে নিচ্ছেন ফ্রিল্যািন্সিং। ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে ফ্রিল্যান্সারদের ভূমিকা অপরিসীম, তরুণ উদ্যোক্তা আনিসুর রহমান নিলয়ের হাত ধরে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ এবং স্বপ্ন পূরণ হচ্ছে লক্ষ্য তরুণ-তরুণীদের। তাদের মধ্যে সফল একজন ফ্রিল্যান্সার আনিসুর রহমান নিলয়। ২০১৬ সালের শেষের দিকে ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ারে তার পথ যাত্রাল, সে সময়ের ইন্টারনেট ব্যবস্থা এবং দক্ষ প্রশিক্ষক এর ছিল বেহাল দশা, তারপরও সব বাধা অতিক্রম করে নিজ প্রচেষ্টা, পরিশ্রম এবং আত্মত্যাগের বিনিময়ে আজকে তিনি সফলতার শীর্ষে। নিলয় তার ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ারে জব্দ করেছেন ডিজিটাল মার্কেটিং এবং শপিফাই এর মতো জনপ্রিয় ই-কমার্স সিস্টেম এবং পেয়েছেন ফাইবার, আপওয়ার্ক এর মত ইন্টারন্যাশনাল মার্কেটপ্লেসে টপ রেটেড স্বীকৃতি। এছাড়াও তিনি কাজ করছেন আমেরিকার মত পরা শক্তিধর দেশের একটি স্বনামধন্য Stellar Kits নামক কোম্পানিতে।

নিলয় স্বপ্ন দেখেন হাজারো বেকার যুবকদের আত্মকর্মসংস্থান গড়ে তোলার, তার এই স্বপ্ন পূরণের জন্য গড়ে তুলেছেন অনলাইন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ”নিলয় আইটি ইন্সটিটিউট”এরইমধ্যে সেখানে প্রশিক্ষণ নিয়ে সফল হয়েছেন প্রায় শতাধিক ফ্রিল্যান্সার। নিলয় আইটি ইনস্টিটিউট এর প্রতিষ্ঠাতা আনিসুর রহমান নিলয় বলেন; ”আপনারা বর্তমান যুগের সাথে তাল মিলিয়ে ফ্রিল্যান্সিং করে নিজের ও দেশের উন্নতি সাধন করুন। ফ্রিল্যান্সিং এমনই একটা পেশা যা কোন পেশার সাথে তুলনা হয়না। আপনারা পড়াশোনা, ব্যবসা-বাণিজ্য ও চাকরির পাশাপাশি ফ্রিল্যান্সিং করে একটি স্মার্ট ক্যারিয়ার তৈরি করতে পারেন।মেয়েদের জন্যই খুবই আকর্ষণীয় পেশা তারা ঘরে বসে খুব সহজে সবকিছুর পাশাপাশি ফ্রিল্যান্সিং করতে পারবেন। আমি মনে করি একমাত্র সফল ফ্রিল্যান্সাররাই পারবে এ দেশকে উন্নত করতে।” তিনি বর্তমানে উত্তরা ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে ডিপ্লোমা ইন ইলেকট্রিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে অধ্যয়ন করছেন।

তার সাথে আরও কথা বলে জানা যায় তার সুদুরপ্রসারী চিন্তা ভাবনার ব্যাপারে। প্রতিনিয়ত বিশ্বে ছোয়া লাগছে নতুন প্রযুক্তির এবং প্রযুক্তির কল্যানে কমে আসছে দুরত্ব। ইন্টারনেটের কল্যানে আজ বিশ্ব হাতের মুঠোয়, তাই তিনি চান বাংলাদেশের তরুণরা যেন সঠিক শিক্ষা এবং দক্ষতা অর্জন করে এই প্রযুক্তির পরিবর্তনের সাথে নিজেদের খাপ খাইয়ে নিতে পারে।

এই প্রচেষ্টায় তিনি নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন, প্রতিনিয়ত নতুন নতুন বিষয় নিয়ে ভাবছেন, গবেষনা করছেন এবং তার জ্ঞান বিতরন করে দিচ্ছেন তার অনুসারীদের মাঝে যা সত্যিই প্রশংসনীয়।

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো