ইউপি নির্বাচন: মাঠে নেই প্রার্থী, নৌকা পেতে ঢাকায় দৌড়ঝাঁপ

আসন্ন চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গায় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের বর্তমান মাঠে দেখা যাচ্ছে না। কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ড যেকোনো সময় তাদের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করবেন। এ কারণে সম্ভাব্য প্রার্থীরা দলের উপজেলার শীর্ষ নেতাদের নিয়ে ঢাকা অবস্থান করছেন।

আলফাডাঙ্গা উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী ২৩ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার চতুর্থ ধাপে আলফাডাঙ্গা উপজেলার বানা, পাঁচুড়িয়া ও টগরবন্দ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এরআগে মনোনয়ন জমাদানের শেষ তারিখ ২৫ নভেম্বর, বাছাইয়ের তারিখ ২৯ নভেম্বর এবং প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ৬ ডিসেম্বর।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, তৃণমূল থেকে প্রার্থী বাছাই করে কেন্দ্রে তালিকা পাঠানোর পরেই মনোনয়ন প্রত্যাশীরা ঢাকায় দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন। নিজেকে দলীয় যোগ্য প্রার্থী হিসেবে প্রমাণ দিতে নানা ধরণের তদবির-লবিং এ ব্যস্ত রয়েছেন। প্রত্যেক প্রার্থীর পক্ষে তাদের কর্মী-সমর্থকরা নৌকার মনোনয়ন দিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ব্যাপক প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছেন। এছাড়া ভোটারদের পদভারে পাড়া, মহল্লা, হাট-বাজার, চায়ের দোকান ও গ্রামগঞ্জে নির্বাচনী আমেজ জমে উঠেছে। আলোচিত হচ্ছে সম্ভাব্য প্রার্থীদের নাম। চলছে প্রার্থীদের চুলচেরা বিশ্লেষণ। কে এলাকার উন্নয়ন করেছে, কে করতে পারবে না। আবার কে পাবেন নৌকার টিকিট, কে হবেন বিদ্রোহী প্রার্থী।

উপজেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক সেলিম রেজা বার্তা বাজার’কে জানান, ‘আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়নের জন্য তৃণমূল থেকে তিন ইউনিয়নে মোট ১০ জনের নামের তালিকা জেলা কমিটিতে পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে বানা ইউনিয়ন থেকে ২ জন, পাঁচুড়িয়া ইউনিয়ন থেকে ২ ও টগরবন্দ ইউনিয়ন থেকে ৬ জনের নামের তালিকা পাঠানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে আলফাডাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এস এম আকরাম হোসেন বার্তা বাজার’কে বলেন, ‘আলফাডাঙ্গা উপজেলার তিনটি ইউনিয়নে দলীয় প্রার্থী মনোনয়নের জন্য আমরা যাচাই-বাছাই করে আগ্রহী প্রার্থীদের নামের তালিকা জেলায় পাঠিয়েছি। জেলা কমিটি কেন্দ্রে পাঠিয়েছেন। এছাড়াও মনোনয়ন ফরম উন্মোক্ত থাকায় তালিকার বাইরেও অনেকে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে মনোনয়ন ফরম কিনে জমা দিয়েছেন। এখন বাকি কাজ দলের। দল যাকে যোগ্য মনে করবে; তাকেই মনোনয়ন দিবে। আমরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে সেই প্রার্থীর পক্ষে কাজ করবো।’

মিয়া রাকিবুল/বার্তা বাজার/এসজে

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো