বিদ্রোহী হওয়ায় এক উপজেলাতেই ১৫ নেতা আ’লীগ থেকে বহিস্কার

যশোরের শার্শায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী হিসেবে স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ায় ১৫ নেতাকে দল থেকে বহিস্কার করা হয়েছে।

শনিবার (২০ নভেম্বর) যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা শহিদুল ইসলাম মিলন ও সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই বহিষ্কারের বিষয়ে জানানো হয়েছে। বহিস্কারকৃতরা শার্শা উপজেলা ও ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ এবং তার সহযোগী সংগঠনের দায়িত্বে ছিলেন।

বহিস্কার হওয়া নেতারা হলেন- শার্শার ডিহি ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুর রহমান, সহ সভাপতি হোসেন আলী, যুগ্ম সাধারণ সাইদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল জলিল, লক্ষণপুর ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শামসুর রহমান, বাহাদুরপুর ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, গোগা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি তবিবর রহমান।

পুটখালী ইউনিয়নের নবাগত আওয়ামী লীগ নেতা নাসির উদ্দিন, গোগা ইউনিয়নের ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি তবিবর রহমান, কায়বা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক আলতাফ হোসেন, বাগআঁচড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক আইন বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল খালেক, উলাশী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আয়নাল হক, শার্শা ইউনিয়নে উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সোহরাব হোসেন, নিজামপুর ইউনিয়নে ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আশরাফুল আলম বাটুল, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আমিনুর রহমান ও সেলিম রেজা বিপুল।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন বলেন, ‘দলকে ঐক্যবদ্ধ করার স্বার্থে যেকোনো কঠোর সিদ্ধান্ত নিতে তারা পিছপা হবেন না।’

উল্লেখ্য, আগামী ২৮ নভেম্বর যশোরের শার্শার ১০ ইউনিয়নে ভোট অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে, যশোরের ঝিকরগাছা ও চৌগাছা উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নের ২২ বিদ্রোহী প্রার্থীকে বহিস্কার করে জেলা আওয়ামী লীগ। এর মধ্যে উপজেলায় নির্বাচনী সহিংসতায় প্রানহানী ঘটেছে ২ জনের এবং আহত হয়েছে ৭০ জন।

এ্যান্টনি দাস অপু/বার্তা বাজার/এসজে

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো