গৃহবধূর মৃত্যুর ৫ দিন পর হত্যা মামলা

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার রামনগর গ্রামের গৃহবধূ মারা যাওয়ার ৫ দিন পর বাচ্চু ফকিরসহ তিন জনের নামে হত্যা মামলার অভিযোগ করা হয়েছে।

সোমবার (২২ নভেম্বর) ওই গৃহবধূর ভাই মো. মিরাজ মোল্যা এ লিখিত অভিযোগটি দায়ের করেছেন। মিরাজ মোল্যা সালথা উপজেলার বড় বাহিরদিয়া গ্রামের মোতাহার মোল্যার ছেলে।

লিখিত অভিযোগে সূত্রে তিনি উল্লেখ করেন, মিরাজ মোল্যার বড় বোন ওই মৃত গৃহবধূ হেমালী বেগম (৪০)। বিভিন্ন অজুহাতে হেলামী বেগমকে মারধর করে ও খুন জখমের হুমকি দিয়ে আসছে তার শ্বশুর বাড়ির লোকজন। বিষয়টি ওই গৃহবধূর ভাইসহ বাবার বাড়িতে জানালে তারা বোনের বাড়িতে এসে সকলকে অনুরোধ করেন অত্যাচার না করার জন্য।

গত ১৭ নভেম্বর সকাল ৯ টার দিকে তার বোন হেমালী বেগমকে ঘরের মধ্যে আটকিয়ে রেখে মারপিট করে জখম করে। আঘাতে ঘটনাস্থলে ওই গৃহবধূর মৃত্যু হয়। তখন কীটনাশক তার মুখে ঢেলে বলে বেড়ায় কীটনাশক খেয়ে আত্মহত্যা করেছে। তিনি আরো উল্লেখ করেন, তার বোন হেমালী বেগমের শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখমের চিহ্ন রয়েছে।

বোয়ালমারী থানার ওসি মোহাম্মদ নুরুল আলম বলেন, ওই গৃহবধূ হেমালী বেগমের মৃত্যুর ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উল্লেখ্য, গত ১৭ নভেম্বর হেমালী বেগম নামের এক গৃহবধূর মরদেহ রামনগর গ্রাম থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। পরে ১৮ নভেম্বর ওই লাশ ফরিদপুর মর্গে পাঠানো হয় ময়নাতদন্তের জন্য।

মিয়া রাকিবুল/বার্তা বাজার/এসজে

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো