নরসিংদীতে নৌকা-স্বতন্ত্র’র সংঘর্ষে ২০ জন গুলিবিদ্ধ

নরসিংদী সদর উপজেলায় ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে কমপক্ষে ২০ জন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছেন অর্ধ শতাধিক।

রোববার (২৮ নভেম্বর) দুপুরে সদর উপজেলার করিমপুর, নজরপুর, আমদিয়া ও শীলমান্দী ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের সাথে নৌকার সমর্থকদের সংঘর্ষে এই ঘটনা ঘটে। গুলিবিদ্ধদের মধ্যে দু’জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদেরকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

আহতরা হলেন- মো. সবুজ মিয়া (২২), মাজারুল ইসলাম (৩০), শাহালম মিয়া (৩২), সাদেক মিয়া (১৮), করিমপুর মদ্য পাড়া হুমায়ূন মিয়া (২৯), রওশুনারা বেগম (৪২), কামরুল মিয়া (২৮), হালিম মিয়া (৩০), শুকুর আলি (২২), ইসমাইল মিয়া (৩০), আলিউল্লা (১৯) ও দেলোয়ার হোসেন (৩৫)।

স্থানীয়রা জানায়, নজরপুর ইউপি নির্বাচনে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী আনারস প্রতীকের জালাল উদ্দিন সরকার এবং নৌকা প্রতীকের সাইফুল হক স্বপনের সমর্থকদের মধ্যে থেমে থেমে সংঘর্ষ হয়। নজরপুর ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের একটি কেন্দ্রে রোববার সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত লাঠিসোটা ও টেটা নিয়ে সংঘর্ঘ হয় বলে জানা যায়।

সকালে ভোট শুরুর কিছুক্ষণ পরই চেয়ারম্যান পদে নৌকা এবং আনারস প্রার্থীর সমর্থকরা উত্তেজিত হয়ে পড়ে। দুইদলই কেন্দ্রে ঢোকার চেষ্টা করলে পুলিশ তাদের ধাওয়া করে। পরে ভোট কেন্দ্রের বাইরে দুই পক্টা ও লাঠিসোটা নিয়ে এক পক্ষ আরেক পক্ষকে ধাওয়া করে। এতে গুলিবিদ্ধসহ কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়।

সংঘর্ষে আহত দেলোয়ার হোসেন নামে একজন বলেন, দড়িনবীপুরে নৌকার সমর্থকরা কেন্দ্র দখল করতে এলে আমরা বাধা দেই। পরে তারা টেঁটা, লাঠি, আগ্নেয়াস্ত্রসহ আমাদের ওপর হামলা চালায়। এতে গুলিবিদ্ধসহ অনেকে গুরুতর আহত হন।

এদিকে, করিমপুর, আমদিয়া ও শীলমান্দী ইউনিয়নে কেন্দ্র দখল, জাল ভোটকে কেন্দ্র করে নৌকা ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে গুলিবিদ্ধসহ ৩০ জন আহত হন।

নরসিংদী সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্ত্যবরত মেডিক্যাল অফিসার ডা. মো. আবদুল বাকী বলেন, সকাল থেকে নির্বাচনী সহিংসতায় ৪৯ জনকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এদের মধ্যে ২০-২৫ জন ছাড়া গুলিতে আহত হন। গুরুতর আহত দুইজনকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

নরসিংদী সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) হারুনুর রশীদ বলেন, নজরপুর কেন্দ্রের বাইরে সামান্য সমস্যা থাকলেও ভোটকেন্দ্রের ভেতরে কোনো সমস্যা নেই। এখানে সুষ্ঠুভাবেই ভোট হচ্ছে।

বার্তা বাজার/এসজে

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো