তেঁতুলিয়ায় প্রথমবারের মতো ‘পেরিলা’ চাষ

কোরিয়ান তেলবীজ ফসল পেরিলা প্রথম বারের মতো চাষ হচ্ছে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলায়। সূর্যমূখী ও সরিষার মতো পেরিলার বীজ থেকেও ভোজ্যতেল উৎপন্ন হয়।

পেরিলার আদি নিবাস চীন হলেও দক্ষিন কোরিয়ার এর ব্যাপক বিস্তৃতির কারণে বিশ্বে এটি কোরিয়ান পেরিলা নামে পরিচিত। বাংলাদেশের অধিকাংশ কৃষক এখনো পেরিলার সম্পর্কে অবগত নন। উৎপাদন নিয়ে চলছে নানা গবেষণা।

তারই ধারাবাহিকতায় পঞ্চগড় জেলার তেঁতুলিয়ার উপজেলার বুড়াবুড়ি ইউনিয়নের হারাদিঘী কাজী পাড়া গ্রামের প্রথম বারের মতো পেরিলা চাষ করতেছেন মো: সৈয়দ রোকনুজ্জামান। কৃষি বিভাগের সহযোগীতায় পরিক্ষামূলক ভাবে ২ একর জমিতে পেরিলা চাষ করতেছেন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, তরতাজা গাছে ফুল এসেছে। এই গাছটি দেখতে অনেকটা পান পাতার মতো এবং প্রতিটি পাতা সবুজ বর্ণের।

কৃষক রোকনুজ্জামান সাথে কথা হলে তিনি বলেন, কৃষি অফিস থেকেই আমাকে বীজ দেওয়া হয়। জমিটি পতিত থাকায় সিদ্ধান্ত নিলাম নতুন ফসল চাষ করে দেখি কি হয়। তেঁতুলিয়ায় এই প্রথম আমি পেরিলা চাষ করছি। ফলনও মোটামোটি ভালো হয়েছে।

তিনি আরো জানান, পেরিলা ক্ষেতে মৌমাছির ব্যাপক আনাগোনা দেখা যায়। পেরিলা চাষের পাশাপাশি বাণিজ্যিকভাবে মধু চাষ করাও সম্ভব। ফলনে লাভ জনক হলে আগামীতে আরো অধিক জমিতে পেরিলা ও মধু চাষ করব।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো: জাহাঙ্গীর আলম জানান, জুলাই থেকে অক্টোবর মাস পর্যন্ত জমি গুলো পতিত রাখে অধিকাংশ কৃষক। যেহেতু ৭০-৭৫ দিনের মধ্যে এই ফসল ঘরে তোলা সম্ভব, সেই দিক থেকে জমিতে একাধিক ফসলও করা যায়।

তিনি আরো জানান, পেরিলা চাষাবাদে কৃষকরা লাভবান হওয়ার পাশাপাশি পেরিলাতে শতকরা ৬৫ ভাগই ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড থাকে যা মানব শরিরের জন্য অনেক উপকারি। বিশেষত হৃদযন্ত্র, মস্তিষ্ক, ত্বকসহ ডায়াবেটিস রোগ প্রতিরোধে এটি কার্যক্রর ভূমিকা রাখবে।

এস এম আল আমিন/বার্তা বাজার/অমি

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো