গাইবান্ধায় স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদণ্ড

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামী মাইদুল ইসলাম মিঠুকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন জেলা দায়রা জজ আদালত।

বৃহস্পতিবার (২ ডিসেম্বর) দুপুরে সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ আলাদতের বিচারক দীলিপ কুমার ভৌমিক এই রায় দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসাসী মাইদুল ইসলাম মিঠু গাইবান্ধা সদরের মধ্যনারায়নপুর গ্রামের মোফাজ্জল হোসেনের ছেলে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০০৬ সালে মাইদুল ইসলাম মিঠুর সাথে গোবিন্দগঞ্জের ফুলহার গ্রামের বাসিন্দা খাতিজা বেগমের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে দাম্পত্য কলহ চলে আসছিল। এক পর্যায়ে খাদিজা বেগম স্বামী মাইদুল ইসলামকে ডিভোর্স দেয়। পরে স্থানীয় গণ্যমাণ্য ব্যাক্তিবর্গের মধ্যস্থতায় পূনরায় বিবাহ হয়ে খাদিজার বাবার বাড়িতে তারা ঘর সংসার করতে থাকে।

ঘটনার দিন পরিবারের সবাই রাতে খাওয়া-দাওয়া করে বাবার বাড়ির পাশেই খাদিজার ফুফুর বাড়িতে মাইদুল ইসলাম, খাদিজা বেগম ও তাদের সন্তান মিতু ঘুমাতে যায়। পরদিন সকালে ফুফু বিছানায় খাদিজা বেগমের মৃতদেহ দেখতে পেয়ে চিৎকার করলে তার আত্মীয়-স্বজন ও আশপাশের লোকজন ছুটে আসে।

তারা এসে দেখতে পায় বিছানায় তার গলায় ওড়না বাঁধা ও শরীরের বিভিন্ন অংশে লালচে-কালো ছোপ ছোপ দাগ। স্বামী মাইদুল ইসলাম মেয়ে মিতুকে নিয়ে পালিয়ে যায়।

এই ঘনায় খাদিজা বেগমের বাবা মো. আবদুর রেজ্জাক ২০১৮ সালে গোবিন্দগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। দীর্ঘ শুনানীর পর আসামী মাইদুল ইসলাম নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করতে না পারায় ৪ বছর পর এই হত্যা মামলার রায় কার্যকর করা হয়।

সুমন মিয়া/বার্তা বাজার/এসজে

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো