নোয়াখালীতে সহিংসতা: জবানবন্দিতে বিএনপির বরকতউল্লাহ বুলুর নাম

নোয়াখালীর চৌমুহনীতে মন্দির ও পূজামণ্ডপে হামলা-ভাঙচুরের ঘটনায় দায় স্বীকার করেছেন জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি ফয়সল ইনাম কমল (৩৯)। তিনি জবানবন্দি দেওয়ার সময় দিয়েছেন চাঞ্চল্যকর তথ্য।

হামলার ঘটনায় উস্কানিদাতা হিসেবে বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্যাহ বুলুসহ ১৫ জনের সম্পৃক্ততার কথা বলেছেন কমল।

মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টায় নোয়াখালীর পুলিশ সুপার শহীদুল ইসলাম সংবাদ সম্মেলন করে এসব তথ্য জানান।

পুলিশ সুপার জানান, কুমিল্লার ঘটনায় উসকানিমূলক বক্তব্য ফেসবুকে প্রচারসহ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ফয়সল ইনাম কমলের বিরুদ্ধে ৩২টি মামলাসহ বহু অভিযোগ রয়েছে।

এর আগে সোমবার (২৫ অক্টোবর) বিকালে নোয়াখালীর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ সাঈদীন নাঁহীর আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন কমল।

প্রসঙ্গত, চৌমুহনীর সহিংসতার ঘটনায় উস্কানি দেওয়ার অভিযোগে জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সহসভাপতি ফয়সল ইনাম কমল ও সেনবাগের বীজবাগ ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান এবং জামায়াত নেতা হারুনুর রশিদসহ (৪৮) ১১ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এখন পর্যন্ত বেগমগঞ্জে ১৩৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বার্তা বাজার/এসজে

বার্তা বাজার .কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো